Header Ads

‘মি টু’ আন্দোলনের পক্ষে সমৰ্থন অভিনেত্ৰী বিপাশা বসুর


 ছবি, সৌঃ ইন্ডিয়ানএক্সপ্ৰেস.কম
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, মুম্বইঃ শুক্ৰবার অভিনেত্ৰী বিপাশা বসু ট্যুইটারে ‘মি টু’ আন্দোলনের পক্ষে তাঁর সমৰ্থন জানালেন। পরিচালক সাজিদ খানের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার সব অভিযোগকে তিনি সমৰ্থন করেছেন। তিনি জানান, ‘ আমি খুশি কারণ সিনেমার সেটে বিভিন্ন মহিলা কাস্ট ও ক্ৰিউ মেম্বারদের সঙ্গে তাঁর আচরণ আমায় অস্বস্তিতে ফেলেছে। ২০১৪ সালে ‘হামসকল’ ছবিতে সাজিদ খানের  সঙ্গে কাজ করেছিলেন বিপাশা বসু। তিনি জানান, সাজিদ খান আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ না করলেও মহিলাদের সঙ্গে সৰ্বদা তাঁর রূঢ় আচরণ আমার চোখে পরেছে। আমার সত্যিই দারুণ লাগছে মেয়েদের এইসব জঘন্য পুরুষদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে দেখে। তবে আমার সঙ্গে এইসব কিছুই হয়নি। সেটে মহিলাগের সঙ্গে তাঁর আচরণ অত্যন্ত রূঢ়, যা আমাকে বিব্ৰত করতো। তিনি নোংরা জোকস বলতেন সকলের সামনেই এবং সব মহিলার সঙ্গেই খারাপ ব্যবহার করতেন। আমাকে সবাই বলেছিল তাঁকে কিছু না বলতে। তাই আমি নিজের কাজ একজন প্ৰফেশনালের মতোই তাড়াতাড়ি শেষ করে প্ৰডিউসারদের জানিয়েছিলাম আমি এই ছবির সঙ্গে নিজেকে আর যুক্ত রাখতে পারবো না। কারণ তাহলে যেকোনও সময় আমি হয়তো মেজাজ হারিয়ে ফেলবো।’ বিপাশা এদিন অভিনেত্রী তনুশ্ৰী দত্তের প্ৰশংসা করেন। যার জন্য অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগও ওঠে ভারতে। ‘মি টু’ আন্দোলন শুরু হয়। তিনি বলেন- ‘তনুশ্ৰী দত্তকে কুৰ্ণিশ। তাঁর জন্যই আজ বহু মহিলা সেসব পুরুষদের বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পেয়েছে। যারা নিজেদের ক্ষমতা ও খ্যাতিকে কাজে লাগিয়ে মেয়েদের সুযোগ নিয়েছে।’ তবে অ্যাতো অভিযোগের পর নিজেকে হাউসফুল ফোর-এর সেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন অভিনেতা নানা পাটেকর। এমনকি ভাই সাজিদ খানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তাঁর দিদি তথা হাউসফুল-এর প্ৰযোজক ফারহা খান এই ঘটনাকে দুৰ্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন।

No comments

Powered by Blogger.