Header Ads

উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদে দ্বিতীয়বারের জন্য অধক্ষ্য নির্বাচিত হলেন রানু লাংথাসা


 নবনির্বাচিত অধক্ষ্যের সঙ্গে পরিষদ সদস্যরা

 বিপ্লব দেব হাফলং- প্রত্যাশা মত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বাদশ উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদের অধ্যক্ষ হিসেবে নির্বাচিত হলেন পার্বত্য পরিষদের সেমখর আসন থেকে বিজেপির জয়ী পরিষদ সদস্যা রানু লাংথাসা। এনিয়ে দ্বিতীরবার পার্বত্য পরিষদে কোনও মহিলা সদস্য অধ্যক্ষ পদে নির্বাচিত হলেন। বুধবার দুপুর ১২ টায় পার্বত্য পরিষদের বিশেষ অধিবেশনে অধ্যক্ষ পদের জন্য কোনও প্রার্থী না থাকায় অতিরিক্ত জেলাশাসক বিক্রম দেব শর্মা রানু লাংথাসার নাম দ্বাদশ উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদের অধক্ষ্য হিসেবে ঘোষণা করেন। তারপরই অধ্যক্ষের আসন গ্রহণ করে রানু লাংথাসা পার্বত্য পরিষদের নবনির্বাচিত পরিষদ সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে আগামী পাঁচ বছর পরিষদ পরিচালনা করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। তাছাড়া এই বিশেষ অধিবেশনে পরিষদ সদস্য দেবোলাল গার্লোসা নিপোলাল হোজাই স্যামুয়েল চাংসন এস টি জেম রাংখল ও নম্রথাং মার রানু লাংথাসাকে ধন্যবাদ জানিয়ে পাহাড়ি জেলার সার্বিক বিকাশে সব ধরনের সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। অধিবেশনে দেবোলাল গার্লোসা বলেন গত আড়াই বছর পরিষদের অধক্ষ্য পদে থেকে রানু লাংথাসা পার্বত্য পরিষদ ভালো ভাবেই চালিয়েছেন। আগামী পাঁচ বছর রানু লাংথাসা পার্বত্য পরিষদকে আরও ভাল ভাবে পরিচালনা করবেন বলে আশা প্ৰকাশ করে দেবোলাল গার্লোসা বলেন রাস্তা পানীয় জল স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থা সহ জেলার সার্বিক উন্নয়নই হচ্ছে তাদের প্রথম লক্ষ্য। তারপরই পরিষদের নব নির্বাচিত অধক্ষ্য রানু লাংথাসা অধিবেশন স্থগিত বলে ঘোষণা করেন। এদিকে পার্বত্য পরিষদের অধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়ে রানু লাংথাসা বলেন ডিমা হাসাও জেলার সার্বিক উন্নয়নই হচ্ছে তার প্রধান লক্ষ্য এবং পরিষদের সদস্যদের সঙ্গে নিয়েই তিনি উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন বলে সাংবাদিক দের জানান। পার্বত্য পরিষদের পরবর্তী সিইএম নির্বাচন কবে নাগাদ হবে এনিয়ে রানু লাংথাসাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন অসমের রাজ্যপালের অনুমোদনের পরই পার্বত্য পরিষদের সিইএম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে দেবোলাল গার্লোসাকে পার্বত্য পরিষদের সিইএম নির্বাচন ও পরিষদ গঠন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন আগামী সপ্তাহের মধ্যেই সিইএম ও পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন হওয়ার পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে। অতিরিক্ত জেলাশাসক বলেন রাজ্যপালের অনুমোদন আসার পরই সিইএম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এবং শীঘ্রই সিইএম নির্বাচন করতে রাজ্যপালের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে। এদিকে বুধবারের বিশেষ অধিবেশনে পরিষদের ২৮ সদস্যের মধ্যে ২৪ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন তবে কংগ্রেসের দুই পরিষদ সদস্য ডেনিয়েল লাংথাসা ডরমেন ইংহি পরিষদের নির্দল সদস্য ফ্লেমিং রূপসী সাইলা পরিষদের বিজেপি সদস্য আমেন্দু হোজাই অধিবেশনে উপস্থিত হন নি। এদিকে দ্বাদশ উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদের পরবর্তী সিইএম হওয়া প্রায় এক প্রকার নিশ্চিত দেবোলাল গার্লোসার।  

No comments

Powered by Blogger.