Header Ads

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিলের দাবি, ডিমা হাসাওয়ে আন্দোলন, প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ


বিপ্লব দেব, হাফলং- নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে যখন গোটা রাজ্যে যখন অস্থির পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে এই বিলের বিরোধিতায় বিভিন্ন দল সংগঠনের প্রতিবাদ মিছিল অবস্থান ধর্মঘট চলার সময় এবার অসমের অন্যতম পাহাড়ি জেলা ডিমা হাসাওয়ে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিলের দাবিতে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে পাহাড়ি জেলাতে। শুক্রবার পিপোলস অব ডিমা হাসাও নামের এক ব্যানারে হাফলং ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে ধর্নায় বসেন শতাধিক জনতা। ধর্নাকারী এই ধর্নাকে অরাজনৈতিক দলের ধর্না বলে উল্লেখ করলে এই বিলের প্রতিবাদে ধর্নায় অংশ নেন ডিমা হাসাও জেলা কংগ্রেস সভাপতি নির্মল লাংথাসা কংগ্রেস নেতা জন পাইতং ডেনিয়েল লাংথাসা অগপ দেলের নেতা ফ্রানসিস পাইতং। ও বিভিন্ন দল সংগঠন ও ছাত্র সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নিয়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিলের দাবি তুলেন। এদিকে পার্বত্য পরিষদের জনপ্রতিনিধি ডেনিয়েল লাংথাসা সাংবাদিকদের বলেন এই জাতি ধ্বংসী বিল এনে নরেন্দ্র মোদী এক অস্থির পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চাইছেন তিনি বলেন এই বিল অসমীয়া হিন্দু বাঙালি ও বাঙালি মুসলিমদের মধ্যে বিভাজনের সৃষ্টি করবে। কারন এটি একটি সাম্প্রদায়িক সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বলে মন্তব্য করে ডেনিয়েল লাংথাসা বিতর্কিত সংশোধনী বিলকে বাতিলের দাবি জানান। ধর্নায় অনান্য বক্তারা বলেন নাগরিকত্ব বিল অসম সহ সমগ্র উত্তর পূর্বাঞ্চলে এক ভয়ানক সমস্যার সৃষ্টি হবে। এতে ভূমিপুত্রদের অধিকার খর্ব হবে এবং এই ডিমা হাসাও জেলার জন্য সমস্যার সৃষ্টি তাই এই বিতর্কিত বিলকে বাতিল করতে হবে বলে ধর্নাস্থল থেকে দাবি জানায় ধর্নায় অংশগ্রহন কারীরা। শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে হাফলং ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিলের দাবিতে ধর্না শুরু হয় চলে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত। এদিকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে শুক্রবার বিকেলে হাফলং রাজীব ভবনের সামনে ষষ্ট তপশিলিকে বাঁচানো  ডিমা হাসাও জেলাকে অবৈধ নাগরিকদের অনুপ্রবেশের হাত থেকে রক্ষা করা সহ বিভাজনের রাজনীতি বন্ধ করা এধরনের প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে কংগ্রেস নেতা কর্মীরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গৃহমন্ত্রী রাজনাথ সিং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত সাহ অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সানোয়াল ও রাজ্যের পূর্ত স্বাস্থ্য তথা অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার কুশপুতুল দাহ করা হয়। তবে পুলিশ সঙ্গে এসে বাধা প্রদান করে আগুন নিভিয়ে দিতে সক্ষম হয়। এদিকে তিনসুকিয়ায় বিজেপির জেলা সভাপতির আক্রমনের ঘটনার হাফলং জেলা বিজেপির কার্যালয়ে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়।

No comments

Powered by Blogger.