Header Ads

কার্বি পাহাড়ের দরিদ্র সীমার নিচে থাকা লোকের মাঝে ভারত সেবাশ্রম সংঘ বিতরণ করল কম্বল




দেবযানী পাটিকরঃ গুয়াহাটি
রাজধানী  গুয়াহাটি  থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূরে মেঘালয়ের গায়ে লেগে থাকা কার্বি পাহাড়ের এক প্রত্যন্ত গ্রাম খাফাংখুরজি ও উমলাফের প্রায় ৪০০ লোকের মাঝে ভারত সেবাশ্রম সংঘ (রিজ্বথ্রি)ও ওম শিব আশ্রমের সহযোগে বিতরণ করা হয় শাড়ি ও কম্বল। উল্লেখনীয় যে খাফাংখুরজি গ্রামে তিওয়া জনজাতির প্রায় ৩০টি পরিবার দরিদ্র সীমার নীচে বাস করে। এঁদের জীবিকা  কৃষি। এখানে রয়েছে একটি মাত্র প্রাথমিক স্কুল যেখানে মাত্র একজন শিক্ষক নিয়ে ৩০ জন ছাত্র ছাত্রী পড়াশোনা করছে। এর থেকে প্রায় ৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত উমলাফের গ্রাম ।সেখানে নেপালি, খাসিয়াও কার্বি ৫০০ শতাধিক লোকের বাস। এই গ্রামে নেই কোন বিদ্যুৎ, নেই কোন হাসপাতাল,নেই পানীয় জলের ও যাতায়াতের ব্যবস্থা। এই সমস্ত গরীব লোকদের গরীবতার সুযোগ নিয়ে কিছু স্বার্থপর লোক এদেরকে ধর্মান্তরিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। ভারত সেবাশ্রমের স্বামী পূর্নব্রতানন্দজী বলেন যে ভারত সেবাশ্রম সংঘ সর্বদাই আর্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। তিনি লোকেরদের ধর্মের প্রতি মন নিবেশ করার কথাও বলেন। ওম সেবাশ্রমের প্রতিষ্ঠাতা ওম দেব বলেন যে প্রতিটি গ্রামের লোকেরা নেশায় আসক্ত। তাদের নেশা মুক্ত করা দরকার। এই গ্রামের লোকেরা খুবই সহজ, সরল, দরকার শিক্ষার আলো ঘরে পৌঁছানোর। বিশেষ করে নবীন প্রজন্মের মাঝে শিক্ষার বিশেষ প্রয়োজন। গৌহাটি হাইকোর্টের আইনজীবী সিদ্ধার্থ শঙ্কর দে বলেন যে এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও গ্রামের লোকেরা এই পর্যন্ত নিজেদের ধর্ম সংস্কৃতি ও শুদ্ধ সংস্কারকে ধরে রেখে সনাতন ধর্মের রক্ষা করছেন। এটা প্রত্যেকের কাছে অনুকরণীয়।

No comments

Powered by Blogger.