Header Ads

ব্রডগেজ রেলপথের মাহুর থেকে দাওটুহাজা পর্যন্ত রেলট্র্যাকের অবস্থা পর্যবেক্ষণে সিএসও

 বিপ্লব দেব, হাফলং - লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ রেলপথের মাহুর থেকে দাওটুহাজা পর্যন্ত রেলট্র্যাক পর্যবেক্ষণ করতে  উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের চিফ সেফটি অফিসার এম কে আগরয়াল হাফলং এসে উপস্থিত হন। বুধবার উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের চিফ সেফটি অফিসার হাফলং থেকে মাহুর উপস্থিত হয়ে মাহুর থেকে দাওটাহাজা পর্যন্ত অংশের রেলট্র্যাকের নিরাপত্তার দিকটি খতিয়ে দেখেন। কারন মাহুর-ফাইডিং এর মধ্যবর্তী স্থান ধসপ্রবন এলাকা তাছাড়া দাওটুহাজাতে ৭৭ কিলোমিটার অংশে কয়েকবার মালগাড়ি সহ যাত্রীবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হয়। কেন ওই এক জায়গায় বার কয়েক ট্রেন লাইনচ্যুত হয়েছে সে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে এসেছেন এম কে আগরয়াল সহ রেলের শীর্ষ অফিসাররা। মূলত ট্র্যাকে কোন সমস্যা রয়েছে কিনা এবং যাত্রীদের নিরাপত্তার দিকটি পর্যবেক্ষণ করেন চিফ সেফটি অফিসার  যাত্রী নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বাগ্রে নজর রাখছে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল। কারন এই রেলপথ দিয়ে রাজধানী হামসফর এক্সপ্রেস ত্রিবান্দ্রাম এক্সপ্রেস সম্পর্কক্রান্তি এক্সপ্রেসের মত দ্রুতগামী ট্রেন চলাচল করছে। তাই  চিফ সেফটি অফিসার বুধবার মাহুর থেকে দাওটুহাজা পর্যন্ত রেলট্র্যাকের অবস্থা ও যাত্রীদের নিরাপত্তা বিষয়টি দেখার পাশাপাশি অ্যালাইনম্যান্টে কোনও সমস্যা রয়েছে কিনা সেগুলি ও খতিয়ে দেখেন। এদিকে প্রায় আড়াই বছর পর মাইগ্রেনডিসার পুরনো ১৮০ মিটার রেলট্র্যাক খুলে দেওয়া হল রবিবার বর্তমানে এই রেল ট্র্যাক দিয়ে এখন ট্রেন চলাচল করছে। ২০১৫ সালের জুনে ধস নেমে মাইগ্রেনডিসায় ওই ১৮০ মিটার রেলট্র্যাক পুরো নিশ্চহ্ন হয়ে যাওয়ার জেরে প্রায় ৫২ দিন রেল চলাচল বন্ধ ছিল পাহাড় লাইনে। তারপর অনেক চেষ্টা করেও উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের নির্মান শাখা ওই ১৮০ মিটার রেলট্র্যাক ঠিক করতে না পেরে সেখান থেকে ডাইভার্শন করে এস বানিয়ে রেল ট্র্যাক তৈরী করে ট্রেন চলাচলের জন্য তারপর আড়াই বছর পর পুরনো জায়গায় রেলট্র্যাক বসানো হয়। চিফ সেফটি অফিসার এম কে আগরয়াল বুধবার ওই জায়গার রেল ট্র্যাকের নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখেন।

No comments

Powered by Blogger.