Header Ads

হাইলাকান্দিতে গাঁজা পাচারের দায়ে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড অভিযুক্তের

হাইলাকান্দি (অসম), (হি.স.): গাঁজা পাচারের অপরাধে পাচারকারীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছেন বিশেষ আদালতের বিচারপতি। হাইলাকান্দি জেলা আদালতের বিশেষ বিচারপতি দেবাশিস ভট্টাচার্য এক চাঞ্চল্যকর রায়ে আলতা হুসেন নামের এক গাঁজা পাচারকারীকে এনডিপিএস আইনের অধীনে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছেন। সেই সঙ্গে অভিযুক্তকে আরও দশ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন বিচারপতি। জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম হাজতবাস করতে হবে আলতাকে। ২০১৭ সালের গাঁজা পাচার সংক্রান্ত এক মামলার প্রেক্ষিতে আদালত এই কঠোর রায়দান করেছে। সে সময় পুলিশ এবং সিআরপিএফ বমাল এই গাঁজা পাচারকারীকে পাকড়াও করেছিল। এ নিয়ে বিচার প্রক্রিয়া চলার পর আদালত এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছে। আইনজীবী উজ্জ্বলকুমার দাস জানান, গাঁজা পাচারের ঘটনা ঘটেছিল ২০১৭ সালের ২৩ ডিসেম্বর। সেদিন পাঁচগ্রাম পুলিশ গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে গাঁজা-সহ পাচারকারী আলতা হুসেনকে গ্রেফতার করে। পাঁচগ্রাম থানার এএসআই মাজারুল ইসলাম লস্করের পক্ষ থেকে পরে পাঁচগ্রাম থানায় এ সংক্রান্ত একটি মামলা  দায়ের করা হয়। এই মামলার সূত্র ধরে পুলিশ এবং সিআরপিএফ অভিযানে নামে। তারা অভিযান চালিয়ে আলগাপুরের কালিনগর তৃতীয় খণ্ড এলাকার রেলস্টেশনের পাশে মধ্যরাতে গাঁজার প্যাকেট-সহ আলতা হুসেনকে গ্রেফতার করে। এই অভিযানে আলগাপুরের ওসি মহেন্দ্র বরা, পাঁচগ্রামের ওসি আব্দুল বাসিত এবং ঘারমুড়া সিআরপিএফ ক্যাম্পের অ্যাসিস্ট্যান্ট কমান্ডেন্ট দেবেন্দ্র কুমার-সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মীরা নেতৃত্ব দেন। অভিযানের সময় আলতা হুসেনের ব্যাগে পাঁচ কেজি গাঁজা পাওয়া যায়। এই গাঁজাগুলি পাচারের জন্য সে নিয়ে যাচ্ছিল বলে পুলিশ জানতে পারে। এ নিয়ে আরও তদন্ত করে পুলিশ। পরবর্তীতে উদ্ধারকৃত গাঁজাগুলির ফরেন্সিক পরীক্ষা করানো হয়। তাতে উদ্ধার করা বস্তু গাঁজা বলে প্রমাণিত হয়।
সৌজন্য : হিন্দুস্থান সমাচার

No comments

Powered by Blogger.