Header Ads

প্ৰয়াত বাংলা কথাসাহিত্যিক দিব্যেন্দু পালিত, চলে গেলেন কবি পিনাকী ঠাকুর



 কথাসাহিত্যিক দিব্যেন্দু পালিত
কবি পিনাকী ঠাকুর
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদনঃ মৃত্যুর মিছিল যেন থামতেই চাইছে না। ২০১৮-র শেষে মৃণাল সেনের মৃত্যুর পর ২০১৯-এর প্ৰথমে বাংলা সাহিত্যে আরও নক্ষত্ৰ পতন। প্ৰয়াত হলেন বাংলা কথাসাহিত্যিক দিব্যেন্দু পালিত। প্ৰয়াত হয়েছেন কবি পিনাকী ঠাকুরও। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৯বছর। বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। তাঁর প্ৰথম কাব্যগ্ৰন্থ ‘একদিন অশরীরী’ পাঠককূলের নজর কাড়ে। এরপর ‘আমরা রইলাম’, ‘অঙ্কে যত শূন্য পেলে’ খুব জনপ্ৰিয়তা পায়। ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্ৰ পিনাকী ৮০-র দশকে লেখালিখি শুরু করেন। ২০১২ সালে ‘চুম্বনের ক্ষত’ কাব্যগ্ৰন্থের জন্য আনন্দ পুরস্কার পেয়েছিলেন। তার আগে তিনি কৃত্তিবাস, বাংলা আকাদেমি পুরস্কার পেয়েছেন। অন্যদিকে, পঞ্চাশের দশকে বাংলা কথাসাহিত্যে যাঁরা নজর কেড়েছিলেন, দিব্যেন্দু পালিত তাঁদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। দিব্যেন্দু পালিতের ১৯৩৯ সালের ৫ মার্চ জন্ম হয় বিহারের ভাগলপুরে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাহিত্য বিভাগের ছাত্র ছিলেন তিনি। ১৯৫৫ সালে প্রথম গল্প ‘ছন্দপতন’ প্রকাশিত হয় আনন্দবাজার পত্রিকার রবিবাসরীয়তে। প্রথম উপন্যাস ‘সিন্ধু বারোয়াঁ’ গ্রন্থাকারেই প্রকাশিত হয় ১৯৫৯ সালে। ১৯৮৪ সালে পেয়েছেন আনন্দ পুরষ্কার। ‘ঢেউ’ উপন্যাসটির জন্য পেয়েছেন বঙ্কিম পুরষ্কার (১৯৯০)। ‘অনুভব’ উপন্যাসটির জন্যে সাহিত্য অ্যাকাদেমি পুরষ্কার পেয়েছেন ১৯৯৮ সালে।

No comments

Powered by Blogger.