Header Ads

গুয়হাটি গনেশগুড়ি সহ ৩০/১০-এর ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণে এনডিএফবি প্ৰধান রঞ্জন দৈমারি সহ ১৫ জন অভিযুক্ত


গুয়াহাটিঃ অসমের রাজধানী নগরী দিশপুর-গুয়াহাটি সহ রাজ্যের চার জায়গায় দেশ কাঁপানো বিস্ফোরণ কাণ্ডে দীৰ্ঘ ১০ বছর পর সিবিআই আদালত বড়ো উগ্ৰপন্থী সংগঠন এন ডি এফ বি প্ৰধান রঞ্জন দৈমারী সহ ১৫জনকে দোষী সাব্যস্ত করে। আগামী ৩০ জানুয়ারি চূড়ান্ত রায় দান, এই রায়ে তাদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বদলে কয়েকেজনকে ফাঁসি দেওয়ার সম্ভাবনার কথা জানালেন সিবিআই অফিসাররা। রাজ্যের প্ৰধান সচিবালয় দিশপুর থেকে ঢিল ছুড়া দূরত্বে গুয়াহাটি গণেশগুড়ি, পানবাজার আইনজীবিদের কাৰ্যালয়, বঙ্গাইগাঁও, বরপেটা এবং কোকরাঝাড়ে ২০০৮ সালের ৩০ অক্টোবর বৃহস্পতি বার বেলা ১১-৩০ প্ৰায় একই সময়ে পাঁচ জায়গায় প্ৰায় ১ ডজন বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ৯০ জন নিহত এবং ৫ শতাধিক আহত হয়। বহু পরিবার আজও সরকারি আৰ্থিক সাহায্য পায়নি। ভূক্তভোগী পরিবারগুলি অভিযুক্তদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছে। সিবিআই অফিসাররা জানিয়েছেন ৬৫০ জনের সাক্ষ্য গ্ৰহণ করে ৬৭৮টি নথিপত্ৰ ঘেঁটে ২২ জনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। পরে ১৫জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্ৰমাণিত হয়। প্ৰধান অভিযোক্ত রঞ্জন দৈমারি ছাড়াও রাজেন গয়ারি, আনচাই বড়ো, প্ৰভাত বড়ো, রাজু সরকার, খৰ্গেশ্বর বসুমতারি, মধুরাম ব্ৰহ্ম, নিলীম দৈমারি, লক বসুমতারি, বি থরাই, ইন্দ্ৰ ব্ৰহ্ম, জয়ন্ত ব্ৰহ্ম, জৰ্জ বড়ো প্ৰমুখ ১৫জনকে গুয়াহাটি সেন্টাল জেলে পাঠানো হয়। এতদিন তারা জামিনে ছিলেন, রঞ্জন দৈমারি এই ঘটনায় তাদের হাত নেই বলে জানিয়ে বলেছেন, সুবিচারের জন্য তারা উচ্চ আদালতে যাবেনা।

No comments

Powered by Blogger.