Header Ads

টরেন্টোর কবরস্থানে চিরঘুমে শায়িত অভিনেতা কাদের খান

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ কাবুলে জন্মগ্রহণ করেন কাদের খান। ছেলেবেলাতেই তাঁর পরিবার মুম্বাইতে চলে আসে। কাদের খান ১৯৭৩ সালে রাজেশ খান্নার ‘দাগ' সিনেমায় বলিউডে তাঁর অভিষেক ঘটান। সারা জীবনে ৩০০ টিরও বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন কাদের।  দীর্ঘদিনের অসুস্থতার পর সোমবার মারা যান প্রবীণ অভিনেতা কাদের খান। বুধবার দুপুরে কানাডার মেডোভেল সিমেট্রিতে তাঁকে কবর দেওয়া হয়। কাদের খানের শেষকৃত্যের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়। তাঁর ছেলে সরফরাজ এবং পুরো পরিবার কবরস্থানে সমবেত হয়েছিলেন বর্ষীয়াণ এই অভিনেতাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে। সরফরাজ আগেই জানিয়েছিলেন তাঁদের পুরো পরিবার কানাডায় থাকায় সেখানেই অভিনেতার শেষ কাজ সম্পন্ন করবেন তাঁরা। সংবাদ মাধ্যমকে সরফরাজ খান আগেই বলেছেন, “কাদের খান তাঁর পরিবারের সদস্যদের ঘিরে থাকা অবস্থাতেই মারা যান এবং মারা যাওয়ার আগের মুহূর্ত পর্যন্ত তাঁর মুখে হাসি লেগেছিল। আমার বাবার জীবনের শেষ বছরগুলো তাঁর জন্য খুব বেদনাদায়ক ছিল। এমন একটা অসুখে তিনি ভুগেছেন যে কিছু করার ছিল না। টরন্টোতে তিনি সম্ভাব্য সর্বোত্তম চিকিৎসা ও সেবা পেয়েছেন।” অমিতাভ বচ্চন, ডেভিড ধাওয়ান, অনুপম খের, রবীনা ট্যান্ডনসহ বহু বলিউড সেলিব্রিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রবীণ এই অভিনেতাকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। দো অউর দো পাঁচ, মুকাদ্দার কা সিকান্দার, নটওয়ারলাল, সুহাগ, কুলি এবং শাহেনশাহ'র মতো ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্রগুলিতে অভিনয় করেছেন তিনি। অমিতাভ বচ্চন টুইট করেছেন: “কাদের খান চলে গেছেন। দুঃখজনক খবর। আমার প্রার্থনা ও সমবেদনা রইল। অসামান্য প্রতিভাসম্পন্ন মঞ্চশিল্পী, বিশিষ্ট লেখক; আমার বেশিরভাগ সফল চলচ্চিত্রগুলির চিত্রনাট্য লিখেছেন তিনি। একজন সত্যিকারের বন্ধু এবং গণিতজ্ঞকে হারালাম।” খুন ভরি মাং, হিরো নম্বর ওয়ান, বাপ নাম্বারি বেটা দশ নাম্বারি, কিষণ কানহাইয়া, বোল রাধা বোল, আঁখে, দুলহে রাজা ইত্যাদি চলচ্চিত্রে তাঁর অভিনয় স্মরণীয়। ২০১৭ সালের মস্তি নহি সস্তিতে শেষবার দেখা যায় তাঁকে।

No comments

Powered by Blogger.