Header Ads

মুখ্যমন্ত্ৰীর সামনে কাজিরঙা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ৰছাত্ৰীদের বিক্ষোভ প্ৰদৰ্শন

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ যোরহাটের কাজিরঙা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাবৰ্তন অনুষ্ঠানে রবিবার মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল ভাষণ দেওয়ার সময় কয়েকশ ছাত্ৰছাত্ৰী বিশ্ববিদ্যায়ের ক্যাম্পাস অবরোধ করে। ছাত্ৰছাত্ৰীরা মুখ্যমন্ত্ৰীর পথ আটকাবার চেষ্টা করে। এরপর তাদের জোর করে বাসে তুলে অন্যত্ৰ ছেড়ে দেয় পুলিশ। এদিনের সমাবৰ্তনে মুখ্যমন্ত্ৰী ৪০৫ জন ছাত্ৰছাত্ৰীকে ডিগ্ৰি দেন। এদিন অসমের বিশিষ্ট প্ৰকৃতিপ্ৰেমী যাদব পায়েংকে ডক্টরেট সম্মানে সম্মানিত করা হয়। বরাকের বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী প্ৰদীপ দত্ত রায়কে এদিন বিজেপি দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। তিনি শিলচরের আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অসমিয়া ছাত্ৰছাত্ৰীদের অধ্যায়ন করতে দেওয়া হবে না বলে হুমিক দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে অসমের বিভিন্ন থানায় জাতীয়তাবাদী সংগঠনগুলি এজাহার দাখিল করে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি রঞ্জিত দাসের তরফ থেকে সাধারণ সম্পাদক দীলিপ শইকিয়া এদিন প্ৰদীপ দত্ত রায়কে সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কারের নোটিস জারি করেন। অন্যান্য দিনের মতো এদিনও রাজ্যে প্ৰতিবাদ অব্যাহত থাকে। অসম বিধানসভার অধ্যক্ষ হিতেন্দ্ৰ নাথ গোস্বামীর পর এদিন বিজেপির বিধায়ক পদ্ম হাজরিকাও বিলের বিরুদ্ধে স্থিতি গ্ৰহণ করেন। কেএমএসএস নেতা অখিল গগৈ বলেছেন- বিহুর সময়ও তারা প্ৰতিবাদ আন্দোলন থেকে সরে আসবেন না। এদিকে গোটা রাজ্যবাসীকে ভোগালি বিহু এবং পৌষ সংক্ৰান্তির শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল এবং রাজ্যপাল জগদীশ মুখী। 

No comments

Powered by Blogger.