Header Ads

এক রাতে রাজ্যে সাত জায়গায় মন্দিরে চুরি

দেবযানী পাটিকর, গুয়াহাটিঃ  মহানগরের উগ্রতারা দেবালয়ে অষ্টধাতুর মূর্তি চুরির দুই সপ্তাহ যেতে না যেতে শুক্রবার রাতে রাজ্যের সাতটি জায়গায় চুরির ঘটনা ঘটল। চোরের দল এক রাতে রাজ্যের সাতটি মন্দিরে লুটপাট চালায় । একই রাতে নওগাঁর রাধাকৃষ্ণ মন্দিরে চুরি হয়। চোর মন্দিরের মূল্যবান সামগ্রী সমেত লুটে নিয়ে যায় দানপাত্র। ওদিকে শুয়ালকুচির ঐতিহাসিক সিদ্ধেশ্বর দেবালয়েও চুরি হয়। চোরের দল মন্দির থেকে দুটি অষ্টধাতুর মূর্তি চুরি করে  নিয়ে যায়। এদিকে একই রাতে মহানগরের পাণ্ডু-মালিগাঁও এলাকায় পাঁচটি মন্দিরে  চুরির ঘটনা ঘটে। মালিগাঁওয়ের হনুমান মন্দির, শীতলা মন্দির, শিব মন্দির, শনি মন্দির এবং রাম  মন্দিরে চোরেরা লুটপাট চালিয়ে মূল্যবান সামগ্রী সোনা ও রূপোর গয়না, সেইসঙ্গে দানপাত্র চুরি করে নিয়ে যায়। চোরের দলটি প্রাথমে মালিগাঁওয়ের রাম মন্দিরে ভগবানের মূর্তির সোনার অলংকার চুরি করে, মন্দিরের  দানপত্র লুটপাট করে ওখান থেকে বেরিয়ে পাাশের একটি শীতলা মন্দিরে ঢুকে  মার গলার সোনার হার এবং দান পাাত্র  ভেঙে নগদ টাকা লোপাট করে। এখানেই শেষ হয়নি চোরের অভিযান। শীতলা মন্দিরের পরে মালিগাঁওয়ের বিজি কলনির একটি শিব মন্দিরের  তালা ভেঙ্গে বাবা ভোলানাথের সোনার মুকুট চুরি করে ও দানপাত্র ভেঙে নগদ টাকা চুরি করে। পরে চোরের দল পাশের একটি হনুমান মন্দিরে ঢুকে । মন্দিরে লুটপাট চালাতে না পেরে চোরেরা মন্দির প্রাঙ্গণে রাখা একটি বাইক চুরি করে নিয়ে যায়। সঙ্গে একটি শিব মন্দিরেও  লুটপাট চালায় চোরের দল। মন্দিরের অনেক মূল্যবান সোনার অলঙ্কার চুরি করে না নিয়ে যায়। এদিকে ধারাবাহিক মন্দিরে চুরির ঘটনার ফলে মহানগরের মন্দির কমিটির লোকেরা চিন্তিত হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় গোটা মালিগাঁও এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। রাতে পেট্রোলিং করার সময় জালুকবাড়ি পুলিশ ও গোশালা পুলিশ এই চুরি সম্পর্কে অবগত ছিল না। ঘটনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌঁছয় জালুকবাড়ি ও গোশালা পুলিশের উচ্চ পদস্থ অধিকারীকরা। পুলিশ এই বিষয়ে একটি মামলা দাখিল করে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এ সম্পর্কে এসিপি পঞ্জিত দুওরা বলেন - মন্দিরে ধারাবাহিক ভাবে যে চুরি  হয়েছে  তার তদন্ত প্রক্রিয়া  শুরু হয়েছে। যত শীঘ্ৰ সম্ভব চোরের দলকে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.