Header Ads

অগপ সরে গেলেও বিজেপি কোনও ক্ষতির সন্মুখীন হবে নাঃ রঞ্জিত দাস

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ইসু্যতে, হিমন্তের সমালোচনার ফলে অগপর জনভিত্তি বেড়েছে

অমল গুপ্ত
গুয়াহাটিঃ বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের প্ৰধান শরিক অগপর সঙ্গে বিজেপির মিত্ৰতার স্থায়িত্ব নিয়ে প্ৰশ্ন উঠেছে। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে অগপ ঘরে-বাইরে বিজেপিকে কঠোর সমালোচনা করায় বিজেপিকে বিব্ৰত করে তুলেছে। পঞ্চায়েত নিৰ্বাচনের মুখে নাডার চেয়ারম্যান তথা অৰ্থ মন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মা অগপকে কঠোর সমালোচনা করায় অগপর মানমৰ্যাদা নিয়ে প্ৰশ্ন তোলায় অগপর মধ্যেই অগপর নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ধূমায়িত হচ্ছে। সরকার থেকে অবিলম্বে সরে আসার সওয়াল করছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এমনকি অগপর একাংশ তাদের নেতৃত্বের সমালোচনা করে বলছে, লালবাতি, রেড কাৰ্পেটের মোহ ছাড়তে পারছে না অগপ মন্ত্ৰীরা। আজ কিন্তু অগপ নেতৃত্ব অন্য কথা বলছে। তাদের বক্তব্য জাতীয় স্বাৰ্থের পরিপন্থী নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধে সরকারের কেবিনেট কমিটির বৈঠকে এবং সরকারের যে কোনও অনুষ্ঠানে অগপ সরব হয়েছে। সেখানেই দলের স্বাৰ্থকতা, জনগণের স্বাভিমানের পক্ষে অগপ আছে। পঞ্চায়েত নিৰ্বাচনে অগপ বিজেপি থেকেও ভাল ফল করবে। সেই ভয় থেকেই হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মা অগপকে আক্ৰমণ করে যাচ্ছেন। আজ ২৭ নভেম্বর বিজেপি সভাপতি রঞ্জিত দাস, অগপর কঠোর সমালোচনা করে বলেন, অগপর সঙ্গে বিজেপির নিৰ্বাচনী মিত্ৰতা হয়েছিল, অসমীয়া জাতি-গোষ্ঠীর স্বাৰ্থে রামধেনু সুদৃঢ় মিত্ৰতা চেয়েছিলাম, জটিলতা চাইনি। কিন্তু অগপ এই ভাবে বিজেপির সঙ্গে ব্লাকমেল করতে পারেনা। সরকারের যে কোনও অনুষ্ঠানে, রাস্তা-ঘাটের উদ্বোধনী সভাতেও অগপ মন্ত্ৰীরা বিজেপিকে যাচ্ছেতাই ভাষায় দোষারোপ করেছে। বিজেপি নেতৃত্বের সরকারের মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল, পুত্তমন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মাকেও গালি গালাজ করছে অগপ নেতারা। বিজেপি সভাপতি আজ এক বৈদু্যতিন মাধ্যমের কাছে এমন অভিযোগও করেছেন, অগপ মন্ত্ৰীরা তাদের দায়িত্ব পালন করছে না। সভাপতি রঞ্জিত দাস স্পষ্ট ভাষায় বলেন, অগপ সরকার থেকে সরে গেলেও বিজেপির কোনও ক্ষতি হবেনা। অগপ-বিজেপির মধ্যে এই মিত্ৰতা নিয়ে ঘোরতর সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছে, পঞ্চায়েত নিৰ্বাচনে প্ৰচারাভিযানে তার বিরূপ প্ৰভাব পড়েছে। যে সব কেন্দ্ৰে অগপ-বিজেপি মিলে মিশে প্ৰচারিভাযান চালাচ্ছিল সেই সব কেন্দ্ৰে বিশৃংঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। আজও বিরোধী দল এআইইউডিএফ এবং কংগ্ৰেস বলেছে, মানমযাদা রেখে অগপর উচিত সরকার থেকে সরে আসা। এই দুই দল ই অগপকে পাশে পাবার আগ্ৰহও প্ৰকাশ করেছে।

No comments

Powered by Blogger.