Header Ads

গুয়াহাটি-ডিব্ৰুগড় ইণ্টার সিটি লাইনচ্যুত, চাকায় পৃষ্ঠ হয়ে হাতির মৃত্যু


গুয়াহাটিঃ রাজ্যে বন কেটে বসতি স্থাপনের ধুম পড়ে গেছে। গুয়াহাটি সংলগ্ন আমচাং অভয়ারণ্যেও সিমেেণ্টের কারখানা রমরমে চলছে। নুমলিগড়ে বুনো হাতিদের যাতায়াতের করিডরে পতঞ্জলির কারখানা, এক শিংঙ্গ বিশিষ্ট গণ্ডারের জন্য বিশ্ববিখ্যাত কাজিরঙা রাষ্ট্ৰীয় উদ্যান সুরক্ষিত নয়। কাজিরঙা রাষ্ট্ৰীয় উদ্যানের সংলগ্ন কাৰ্বি পাহাড়ে হাতিদের করিডর আটকিয়ে ১৬ টার বেশি পাথর ভাঙা মেশিন রাত দিন চলছে। এই ঘটনায় কাৰ্বি আংলং জেলার বন বিভাগ এবং পুলিশের একাংশ জড়িত বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে। ভয়াৰ্ত হাতিরা করিডর ছেড়ে জনাঞ্চলে হামলা করছে। খাদ্যের সন্ধানে হাতিরা বাইরে বেড়িয়ে আসছে। আজ ভোর রাতে গিবন অরণ্যের মধ্যে তিতাবরে গুয়াহাটি-ডিব্ৰুগড় ইণ্টার সিটি লাইনচ্যুত হওয়ার ফলে একটি হাতির শাবক চাকায় পৃষ্ঠ হয়ে মারা যায়। ট্ৰেনটির দুটি বগি লাইনচ্যুত হয়। রাজ্যে হাতি-মানুষের সংঘাত ক্ৰমশ বেড়েই চলেছে। এই পৰ্যন্ত প্ৰায় ১৮জন হাতির আক্ৰমণে নিহত হয়েছেন। আজও লাওখোয়ায় এক হাতির মৃতদেহ পাওয়া গেছে। হাতিদের করিডরগুলি ধ্বংস হওয়ার ফলে হাতি-মানুষের সংঘাত ক্ৰমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। সরকারের বন বিভাগ যেমন হাতি-মানুষের সংঘাত বন্ধ করতে পারছে না। সেই সঙ্গে পরিবেশ রক্ষার ক্ষেত্ৰেও ব্যৰ্থ হচ্ছে বলে পরিবেশ প্ৰেমিকদের অভিযোগ।

No comments

Powered by Blogger.