Header Ads

মিজোরামের উন্নয়ন একমাত্র বিজেপি করতে পারবেঃ অমিত সাহ

    
বিপ্লব দেব, হাফলং- কংগ্রেস ভাগাও বিজেপি কো লাও এই মন্ত্র নিয়েই মিজোরামের লুংলেই কলাশিব ও চম্পাই জেলায় মঙ্গলবার নির্বাচনী প্রচার চালালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত সাহ। মিজোরামের তিনটি জেলায় নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ প্রসঙ্গে অমিত সাহ মিজোরামের শাসক কংগ্রেস দল ও এমএনএফকে আক্রমণ করে বলেন এই দুটি দল মিজোরামের জনগণের অধিকার খর্ব করার চেষ্টা চালিয়েছে এতদিন। তিনি আরও বলেন মিজোরামের উন্নয়ন একমাত্র বিজেপি ছাড়া অন্য কোন দল করতে পারবে না তাই মিজোরামে বিজেপি ক্ষমতায় এলে প্রথমে যোগাযোগ ব্যবস্থার উপর গুরুত্ব দেওয়া হবে। এমনকি রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে ষষ্ট তফশিলিকে সংশোধন করে স্বশাসিত জেলা পরিষদকে বিশেষ ক্ষমতা দেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনটি জনসভায় তিনি ওই রাজ্যে বিজেপি সংখ্যগরিষ্ঠ ও সংখ্যালঘুদের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করবেন। কংগ্ৰেসের সৰ্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী মিজোরামের স্থানীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কি সাক্ষাৎ করেছেন? প্ৰশ্ন তোলেন তিনি। মিজোরামের সব নেতা কর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। এই হচ্ছে বিজেপি ও কংগ্রেস দলের মধ্যে পার্থক্য। প্ৰসঙ্গক্ৰমে সাহ আরও বলেন মিজোরাম রাজ্য গঠন হওয়ার ৪০ বছর পূর্ণ হলেও সেই রাজ্যের শহর ও গ্রামীন এলাকায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ প্রসঙ্গে বলেন- মিজোরামে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সৰ্বপ্রথমে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দেওহা হবে এবং রাজ্যকে এক ধর্ম নিরপেক্ষ রাজ্য হিসেবে তৈরি করা হবে। তিনি বলেন- নাগাল্যান্ড মণিপুর অরুনাচল প্রদেশ অসম ত্রিপুরায় যদি বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসতে পারে, তাহলে মিজোরামে কেন বিজেপি সরকার গঠন হবে না। মিজোরামের জনগনের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করবে বিজেপি। মিজোরামও বিজেপির পরিবারের অংশ হওয়া উচিত এদিন এমনটাই মন্তব্য করেন তিনি। এদিন নির্বাচনী জনসভায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত সাহ আরও বলেন- কংগ্রেস আমলে মিজোরামে এনএলইউপি জোর করে মদের দোকান খোলা, তুইরিয়াল হাইডেল প্রকল্পে দুর্নীতি এইসব হয়েছে তাই এবার ইভিএমে এর উপযুক্ত জবাব দেবে মিজোরামের জনতা। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মধ্যে এক বৃহৎ পর্যটন কেন্দ্রস্থল হিসেবে গড়ে উঠার ব্যাপক উপাদান রয়েছে মিজোরামে কিন্তু সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বেহাল থাকার দরুন পর্যটনের উন্নয়ন হচ্ছে না তাই বিজেপি মিজোরামে ক্ষমতায় এলে মিজোরামে পর্যটনের উন্নয়নের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। একইদিনে কংগ্ৰেসের সৰ্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীও চম্পাইয়ে জনসভা করেন। সেখানে তিনি বলেন, মিজোরামে আঞ্চলিক দল এমএনএফ তাদের রাজ্যে আরএসএসকে ঢোকার জন্য রাস্তা খুলে দিয়েছে। এটা খুবই খারাপ কথা, এমএনএফ সেইসব মানুষগুলোকে সাহয্য করছে যারা ওই রাজ্যের সংস্কৃতি, ভাষা এবং ধৰ্মকে বিনষ্ট করতে চাইছে। 
 





                                   

No comments

Powered by Blogger.