Header Ads

ব্ৰাহ্ম সমাজের উদ্যোগে মহানগরে বিশেষ অনুষ্ঠান

গুয়াহাটিঃ মহানগরের পানবাজার স্থিত ব্ৰাহ্ম সমাজের উদ্যোগে রবিবার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে লিটল ম্যাগাজিন আন্দোলন এবং চট্টগ্ৰামে ব্ৰাহ্ম ধৰ্মের ইতিহাস সম্পৰ্কে আলোকপাত হয়। অনুষ্ঠানে মুখ্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বাংলাদেশের বিশিষ্ট কবি, প্ৰাবন্ধিক তথা গবেষক কমলেশ দাশগুপ্ত বলেন- ১৯২৭ থেকে ৩০ সাল থেকেই বাংলাদেশে লিটল ম্যাগাজিন আন্দোলনের স্ৰোত শুরু হয়। এরপর ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগ হল। ভারত তো স্বাধীন হয়ে গেল। আমরা পূৰ্ব পাকিস্তানের অধীনে পরে গেলাম। তারপর বাঙালিদের ওপর কত অত্যাচার কত নিৰ্যাতন হয়। সেই রকম পরিবেশে থেকে আমাদের কবিতায়, সাহিত্য সংস্কৃতি সমস্ত কিছুতে প্ৰকৃতির সঙ্গে মানুষের সম্পৰ্ক, মানুষের চেতনা, চিন্তাবোধ সমস্ত কিছু  চলে আসে। তারপর ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়। প্ৰসঙ্গক্ৰমে তিনি আরও বলেন বাংলাদেশের কবিতায় মানুষের সঙ্গে প্ৰকৃতির সম্পৰ্কের কথা উল্লেখ করেন। পাশাপাশি এপার বাংলার কবিতার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, কলকাতার কবিতায় নগরের অন্ধকার, গলি-ঘুপচি, লাইট পোস্ট, মানুষের মধ্যে জটিলতা এ সমস্ত কিছু ফুটে ওঠে। এর আগেও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তিনি অসমে এসেছেন। অসম খুব সুন্দর জায়গা বলে মন্তব্য করেন তিনি। এদিনের অনুষ্ঠানে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন তিনি। কবিতা পাঠ করে কবিতা নিয়ে সংক্ষিপ্ত মন্তব্য রাখেন চট্টগ্ৰামের প্ৰবীণ কবি খুরশীদ আনোয়ারও। অনুষ্ঠানের প্ৰথম পৰ্ব পরিচালনা করেন প্ৰবীণ সাহিত্যিক, সম্পাদক তথা বাচিক শিল্পী সুকুমার বাগচি। দ্বিতীয় পৰ্ব পরিচালনা করেন অবসরপ্ৰাপ্ত অধ্যাপিকা মুক্তি দেব চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শেষ পাতে ছিল কলকাতার শিল্পী শুভাশিস চক্ৰবৰ্তীর কন্ঠে ব্ৰহ্মসংগীত। এদিনের অনুষ্ঠানে অবসরপ্ৰাপ্ত অধ্যাপক ড০ উষারঞ্জন ভট্টাচাৰ্য, সমাজসেবী, প্ৰাক্তন বিধায়ক পদ্মশ্ৰী অজয় দত্ত প্ৰমুখ উপস্থিত ছিলেন।    

No comments

Powered by Blogger.