Header Ads

প্ৰয়াত প্ৰাক্তন মন্ত্ৰী চন্দন সরকার, দলের সম্পদ ছিলেন রিপুন বরা


গুয়াহাটিঃ বঙ্গাইগাঁঁও জেলার দক্ষিণ অভয়াপুরির তার বাসভবনে গতকাল রবিবারও ছিল পঞ্চায়েত টিকিট প্ৰত্যাশী প্ৰাৰ্থীদের ভীড়। তিনি টিকিট প্ৰত্যাশীদের দাবি দাওয়া নিয়ে গভীর রাত পৰ্যন্ত বৈঠক করেছিলেন। সেই ‘সুস্থ' মানুষ চন্দন সরকার ভোর রাতে হঠাৎ ‘হাৰ্ট অ্যাটাক' হয়ে মারা গেলেন। রাজ্যের প্ৰাক্তন মন্ত্ৰী তথা বাঙালি সমাজের এক প্ৰতিবাদী কণ্ঠ চন্দন সরকারের আকষ্মিক প্ৰয়াণে রাজ্যে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনি দক্ষিণ অভয়াপুরি থেকে তিন তিন বার বিধানসভায় জয়লাভ করেছিলেন। তরুণ গগৈ নেতৃত্বাধীন কংগ্ৰেস সরকারের আমলে জলসেচ বিভাগের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। রাজ্যের ভাষিক সংখ্যালঘু উন্নয়ন বোৰ্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেছিলেন। আজ ভোর ৫-৩০ নাগাদ হাৰ্ট অ্যাটাক হয়। প্ৰথমে অভয়াপুরি প্ৰাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্ৰ পরে বঙ্গাইগাঁও লোয়ার আসাম হাসপাতালে ভৰ্তি করা হয়েছিল। মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বনন্দ সনোয়ালের পক্ষ থেকে বঙ্গাইগাওঁয়ের ডেপুটি কমিশনার তার বাড়িতে গিয়ে মৃতদেহের প্ৰতি শ্ৰদ্ধাৰ্ঘ্য অৰ্পন করেন। প্ৰদেশ কংগ্ৰেস সভাপতি রিপুন বরা নেতৃত্বে কংগ্ৰেস প্ৰতিনিধি দল অভয়াপুরি তাঁর বাড়িতে শ্ৰদ্ধা জ্ঞাপন করে বলেন, চন্দন সরকার কংগ্ৰেস দলের সম্পদ ছিল। তাঁর সাংগঠনিক ক্ষমতা ছিল অসাধারণ, প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ, অৰ্থ মন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মা সরকারের মৃত্যুতে শোক প্ৰকাশ করেছেন।

No comments

Powered by Blogger.