Header Ads

৫ রাজ্যের বিধানসভার ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা, ভোট গণনা ১১ ডিসেম্বর


নয়াঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ ৫ রাজ্যের বিধানসভার ভোটের দিনক্ষণ ঘোষিত হল। শনিবার সাংবাদিক সম্মেলনে ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করলেন দেশের মুখ্য নিৰ্বাচন কমিশনার ওপি রাওয়াত। রাজস্থান, ছত্তিশগড়, মধ্যপ্ৰদেশ, তেলেঙ্গানা এবং মিজোরাম। দু-দফায় ভোট হবে ছত্তিশগড়ে। দক্ষিণ ছত্তিশগড়ে প্ৰথম দফার ভোট হবে ১২ নভেম্বর। ২য় দফার ভোট ২০ নভেম্বর। মধ্যপ্ৰদেশ ও মিজোরামে এক দফায় ভোট হবে ২৮ নভেম্বর। রাজস্থান ও তেলেঙ্গানায় এক দফায় ভোট ৭ ডিসেম্বর। মাওবাদী উপদ্ৰুত এলাকা ছত্তিশগড়ে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য ভোট হবে দু দফায়। ভোট গণনা ১১ ডিসেম্বর। নিৰ্বাচন কমিশনার এই ঘোষণা করে বলেন, শনিবার থেকেই পাঁচ রাজ্যে চালু হচ্ছে নিৰ্বাচনী আচরণবিধি। লোকসভা ভোটের আগে এটাই বিজেপি এবং কংগ্ৰেসের শেষ বড় নিৰ্বাচনী লড়াই বলে মনে করা হচ্ছে। মধ্যপ্ৰদেশ, রাজস্থান, ছত্তিশগড় এবং মিজোরামের বিধানসভা ভোট নিৰ্ধারিতই ছিল এ বছরের শেষে। এর মধ্যে গত মাসে আচমকা তেলেঙ্গানা বিধানসভা ভেঙে দেন মুখ্যমন্ত্ৰী চন্দ্ৰশেখর রাও। ফলে সেখানেও ভোট এগিয়ে আসে। এদিন ৩টেয় ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করে কমিশন। প্ৰথমে বেলা সাড়ে ১২টায় নিৰ্বাচনী নিৰ্ঘন্ট ঘোষণার কথা জানিয়েছিল কমিশন। শেষ মুহূৰ্তে হঠাৎ কেন এই বদল হল? সরাসরি কিছু না বললেও নিৰ্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্ৰশ্ন তুলেছেন কংগ্ৰেসের মুখপাত্ৰ রণদীপ সূরজেওয়ালা। ভোট হতে চলা ৫ রাজ্যের মধ্যে তিনটিতেই ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। এই ৩ রাজ্য হল মধ্যপ্ৰদেশ, রাজস্থান, ছত্তিশগড়। মধ্যপ্ৰদেশ বিধানসভায় ২৩০টি আসন। ২০১৩ সালে বিজেপি একাই জিতে নিয়েছিল ১৬৫টি। কংগ্ৰেস পেয়েছিল ৫৮, অন্যান্য ৭। রাজস্থানে ২০০ আসনের মধ্যে ১৬৩তে দিতে ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। কংগ্ৰেস পেয়েছিল ২১টি আসন। অন্যান্যদের দখলে ছিল ১৬টি আসন। ছত্তিশগড়ে ৯০ আসনের মধ্যে ৪৯ আসনে জিতেছিল বিজেপি। কংগ্ৰেস ৩৯টি এবং অন্যান্য পেয়েছিল ২টি আসন। এই পাঁচ রাজ্যের মধ্যে একমাত্ৰ মিজোরামেই জিতেছিল কংগ্ৰেস।  ৪০ আসনের মধ্যে বিধানসভায় কংগ্ৰেস জিতেছিল ৩৪টি আসন। তেলেঙ্গানা রাজ্য গঠনের পর এই প্ৰথম ভোট হতে চলেছে সে রাজ্যে। ২০১৪ সালে অন্ধ্ৰপ্ৰদেশ বিধানসভা ভোটে বৰ্তমান তেলেঙ্গানা এলাকায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্ৰীয় সমিতি বা টিআরএস। তার ভিত্তিতেই নবগঠিত রাজ্যে সরকার গড়েছিলেন টিআরএস নেতা চন্দ্ৰশেখর রাও। ১১৯টি আসনের মধ্যে টিআরএস দখল করেছিল ৬৩টি। কংগ্ৰেস পেয়েছিল ২১টি। তেলেগু দেশম পাৰ্টি (টিডিপি) পেয়েছিল ১৫টি এবং অন্যান্যদের দখলে গিয়েছিল ২০টি আসন। সামনের বছর লোকসভা ভোটের আগে সরকার এবং বিরোধী সব পক্ষেরই নজর থাকবে এই পাঁচ রাজ্যের ভোটের দিকে।


No comments

Powered by Blogger.