Header Ads

উত্তর আমেরিকা ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের দুর্গাপুজো

 

নিউ জার্সির সমরসেট থেকে আশীষ  কুমার  দে
 অষ্টমীর সকাল থেকেই ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের মন্দিরে মানুষের ঢল নামতে শুরু করে। কেন্ডেল পার্ক,  ব্রান্সউইক নিউ জার্সির একটি শহর এখানেই প্রতিষ্ঠিত উত্তর আমেরিকার ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ, এদের পরিচালনায় তিথি মেনে পালন করা হয় দুর্গাপুজো ও নবরাত্রি। হিমেল হাওয়া ও তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রিকে উপেক্ষা করে, নিউইয়র্ক, পেনসিলভেনিয়া ও নিউ জার্সির হাজার হাজার বাঙালি অবাঙালী আসেন এই পুজোয় যোগ দিতে। ব্রান্সউইকে বাঙালি ও গুজরাতি সম্প্রদায়ের বসতি দীর্ঘদিন ধরেই তাই যে কোন হিন্দু  ধর্মীয় উৎসবে এই মন্দির প্রাঙ্গণ হয়ে ওঠে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। একেবারে সাত্বিক রীতি মেনে পুজো  করেন সঙ্ঘের ব্রহ্মচারীরা। এই মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন দিল্লি থেকে আগত স্বামী অমরানাথানন্দ যিনি  নিউইয়র্কে কুইন্স শহরে ১৯৯৫ সালে এসেছিলেন স্বামী বিদ্যানন্দের সহায়ক হয়ে। ১৯৯৭ সালে নিউ জার্সিতে একটি ভাড়া বাড়ী থেকে শুরু ভাগবত পাঠ, হোম যজ্ঞ, পুজো ইত্যাদি। ধীরে ধীরে ভক্তদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় কল্পনা করা হয় একটি আশ্রমের যেখানে থেকে সাধুরা সাধনা ও সমাজকল্যাণমূলসক কাজ করতে  পারেন। ভক্তদের প্রচেষ্টায় ২০০০ সালে একটি বাড়ি সহ অনেকটা জমি কিনে আশ্রমের কাজ শুরু হয়।  পুরানো বাড়িতে এখন ব্রহ্মচারীরা থাকেন ও সামনের জমিতে নির্মিত হয়েছে ভব্য মন্দির,। তৃতল ভবন, ভোগ প্রসাদের রান্নাঘর, প্রেক্ষাগৃহ। সকালে অঞ্জলি হওয়ার পর শুরু হয় সন্ধি পুজো। দুপুরে খিচুড়ি প্রসাদ বিতরণ করা হয় কয়েক হাজার ভক্ত খিচুড়ি প্ৰসাদ খান। খাওয়া-দাওয়ার পৰ্ব চলে সাড়ে তিনটে পর্যন্ত। গাড়ি রাখার জন্য মন্দির কৰ্তৃপক্ষ বেশ কয়েকটি জায়গায় ব্যবস্থা করেছেন। সন্ধ্যায় আরতি ও চন্ডিকা পুজো করা হয়, তা দেখতে প্রচুর মানুষ উপস্থিত ছিলেন এবং ভোগও বিতরন করা হয়।

No comments

Powered by Blogger.