Header Ads

কোজাগরী লক্ষ্মী পুজোয় বাজারে আগুন


নয়াঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ বুধবার ঘরে ঘরে কোজাগরী লক্ষ্মীপুজো। শরতের মরসুমে আকাশে পূৰ্ণিমার চাঁদ দেখা যাবে, সেইসঙ্গে তুলো তুলো মেঘ। চারদিক জ্যোৎস্নার আলোয় স্নিগ্ধ হবে। আর সেইসঙ্গে সকলের ঘরে চলবে মা লক্ষ্মীর পুজোর আয়োজন। বিশেষ করে বাঙালির ঘরে চিড়ে, মুরিমুরিকি, নারকোলের নাড়ু, খৈয়ের উপরা তৈরিতে ব্যস্ত থাকবেন প্ৰবীণ মহিলারা। তবে বৰ্তমানে ডিজিট্যাল লাইফস্টাইলের প্ৰভাব পড়েছে সৰ্বত্ৰই। ফলে বাড়ির পুরুষদের পাশাপাশি বেশিরভাগ মহিলাই কৰ্মব্যস্ততার মধ্য দিয়ে দিন কাটান। তাই চাকুরিরতা মহিলাদের হাতে একদমই সময় না থাকার ফলে বাজারে বৰ্তমানে চিড়ে, মুড়ি, নারকোলের নাড়ু থেকে শুরু করে ধানদূৰ্বা সহ পুজোর সব সামগ্ৰীই রেডিমেড পাওয়া যাচ্ছে। মঙ্গলবার অসম বনধের ফলে পুজোর বাজারে অনেকটা প্ৰভাব পড়েছে। একদিন আগে অনেকেই লক্ষ্মীপুজোর বাজার সেরে নিতে পারেননি। তাই বুধবার সকাল সকাল মহানগরের বাজারগুলিতে গ্ৰহকদের ভিড় জমবে। তবে পুজোকে কেন্দ্ৰ করে বাজারে একলাফে সবুজ শাকসব্জি ও ফলমূলের দাম অনেকটাই বেড়ে গেছে। শশা ৫০ টাকা কেজি থেকে বেড়ে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কিলো বিক্ৰি হচ্ছে। আপেল ১২০ থেকে ১৫০ টাকা, পেয়ারা ৫০ টাকা থেকে বেড়ে ৬০ টাকা কিলো হয়েছে। টম্যাটো ৪০, কুমরো ২৫, বেগুন ৫০, কাঁচা লঙ্কা ১০০ থেকে ১২০টাকা, ক্যাপসিকাম ১২০ গাজর ১২০ টাকায় বিক্ৰি হচ্ছে। তবে শাকসব্জি ফলমূলের দাম বাড়লেও বাঙালির ঘরে লক্ষ্মীপুজো বলে কথা। নমো নমো করে হলেও বাড়িতে লক্ষ্মীর ঘট বসিয়ে গৃহ, ধনসম্পত্তির দেবী মা লক্ষ্মীকে বরণ করতে ইচ্ছুক সকলেই।

No comments

Powered by Blogger.