Header Ads

অভ্যন্তরীণ জল মার্গের মাধ্যমে ব্যবসায় এবং নতুন অধ্যায় শুরু ,স্বাধীনতার পর এই প্রথম পাণ্ডু পোর্টে পৌঁছলো মালবাহী জাহাজ

নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ স্বাধীনতার পর প্রথম বার পাণ্ডু পোর্টে পৌঁছলো বাণিজ্যিক জাহাজ। বিহার থেকে বাংলাদেশ হয়ে সোমবার পোর্টে পৌঁছয় মালবাহী এই জাহাজ ।এর ফলে জল পরিবহণে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়। ২০৮৫ কিলোমিটার দীৰ্ঘ যাত্রার পর পাণ্ডু পোর্টে পৌঁছয় জাহাজটি । অতি কম খরচে ১২৩৫ টন সামগ্রী  গুয়াহাটি পর্যন্ত আনা হয়েছে। অভ্যন্তরীণ জল পরিবহণে মালবাহী জাহাজ চলাচলে পূর্বোত্তরে জলপথে ব্যবসায় এক নতুন দিগন্তের সূচনা হল। অভ্যন্তরীণ জল পরিবহণ প্রাদূষণ কমানোর ক্ষেত্রেও বিশেষ পরিবর্তন আনবে সেইসঙ্গে এটি দেশের অর্থব্যবস্থাকে আরও মজবুত করবে এমনটাই মনে করা হচ্ছে। ওদিকে ভুটান  সরকার এই জল পরিবহণ ব্যবস্থার দ্বারা বাংলাদেশ পর্যন্ত সামগ্রী সরবরাহ করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে।  এ প্রসঙ্গে অভ্যন্তরীণ জল পরিবহণ বিভাগের অসম সঞ্চালক ভরত ভূষণ দেব চৌধুরী বলেন, এ ক্ষেত্রে সরকার উপযুক্ত ব্যবস্থা করলে রাজস্ব অনেক  বাড়বে। জল পরিবহণ বিভাগ রাজ্যের বিভিন্ন উদ্যোগগুলিকে জলপথ দিয়ে সরবরাহ করার আহ্বান করেছে। ভবিষ্যতে উত্তরপবৰ্বাঞ্চলের ব্যবসায়ীরা পরিবহণের ক্ষেত্ৰে জলপথকে ব্যবহার করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। প্ৰসঙ্গত, পূর্বোত্তরের ক্ষেত্রে  অভ্যন্তরীণ জল পরিবহণকে বাড়াতে বেশ কয়েক বছর ধরেই নতুন ভাবে চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছিল। এই ক্ষেত্রে জল পরিবহণ বিভাগ ফোকাস নামের একটি পোর্টালের শুভারম্ভ করে। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অভ্যন্তরীণ জল পরিবহনের সঞ্চালক সুরেন্দ্র সিংহ ,শশীভূষণ শুক্লা প্ৰমুখ। সেইসঙ্গে উপস্থিত ছিলেন স্টার সিমেন্টের আধিকারীকরাও। উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন বিভাগের গণ্য মান্য ব্যক্তিবৰ্গও।

No comments

Powered by Blogger.