Header Ads

পাহাড় লাইনে ফের কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেন লাইনচ্যুত


বিপ্লব দেবঃ হাফলং
লামডিং-শিলচর হিল সেকশনে এবার যাত্রীবাহী ট্রেন দূর্ঘটনার কবলে পড়ল। দূর্ঘটনা স্থল হিল সেকশনের দাওটুহাজা ও ফাইডিং স্টেশনের মধ্যবর্তী ৭৫/৯ কিলোমিটার এলাকা। উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের সিনিয়র জনসংযোগ আধিকারিক নৃপেন্দ্র ভট্টচার্য জানিয়েছেন সোমবার বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ শিয়ালদাহ থেকে আগরতলা অভিমুখি কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ রেলপথের দাওটুহাজা ও ফাইডিংয়ের মধ্যবর্তী ৭৫/৯ কিলোমিটার এলাকায় লাইনচ্যুত হয়। তবে এতে কোনও হতাহতের খবর নেই। ট্রেনের সব যাত্রী অক্ষত অবস্থায় রয়েছেন। নৃপেন্দ্রবাবু জানিয়েছেন সোমবার বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ শিলয়ালদাহ থেকে আগরতলাগামী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনের পিছনের ইঞ্জিনেরে দুটি চাকা লাইনচ্যুত হয় দাওটুহাজা ও ফাইডিং স্টেশনের মধ্যবর্তী স্থানে। তবে আজ রাতের মধ্যেই লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ রেলপথে পুনরায় ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছেন নৃপেন্দ্র ভট্টাচার্য। এদিকে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটির পিছনের ইঞ্জিনের দুটি চাকা লাইনচ্যুত হওয়ার পর পরই লামডিং ও বদরপুর থেকে উদ্ধারকারী ট্রেনে রেলের শীর্ষ আধিকারিক ও রেলকর্মীরা দূর্ঘটনা স্থলে রওয়ানা হয়েছেন বলে জানাগিয়েছে রেলসুত্রে। উল্লেখ্য গত ২৪ সেপ্টেম্বর নামরূপ থেকে শালচাপরাগামী সার বোঝাই মালগাড়ি ২০ টি বগির চাকা লাইনচ্যুত হয়েছিল দাওটুহাজা ও ফাইডিং স্টেশনের মধ্যবর্তী ৭৫/৯ কিলোমিটার এলাকায় এতে দুদিন পাহাড় লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। আট দিনের মাথায় ফের সোমবার আবার একই স্থানে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনের পিছনের ইঞ্জিনের দুটি চাকা লাইনচ্যুত হয়। গত সোমবার দাওটুহাজা ও ফাইডিং স্টেশনের মধ্যবর্তী ৭৫/৯ কিলোমিটার পন্যবাহ ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার পর কাকতলীয় ভাবে ঠিক আট দিনের মাথায় একই জায়গায় এভাবে যাত্রীবাহী ট্রেনের পিছনের ইঞ্জিনের দুটি চাকা লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনা নিয়ে এবার রেলবিভাগ অনুসন্ধান করে দেখবে জানাগিয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.