Header Ads

লিগাসি ডাটা কেনা-বেচা হয়েছে, সুপ্ৰীমকোৰ্টকে জানালেন প্ৰতীক হাজেলা

প্ৰতি জেলায় নতুন করে ১০ শতাংশ করে এন আর সি তালিকা ভেরিফিকেশনের নিৰ্দেশ সুপ্ৰীমকোৰ্টের

গুয়াহাটিঃ অসমের বহু চৰ্চিত জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর (এন আর সি) বিষয়টি আজ জাতীয় পৰ্যায়ে স্থান লাভ করেছে। কেন্দ্ৰীয় স্বরাষ্ট্ৰ মন্ত্ৰণালয় সারা দেশেই জাতীয় নাগরিকপঞ্জী কাৰ্যকরী করতে চাইছে। অসমে এই জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর সূচনা করেছিলেন প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ। তিনি সাংবাদিক সন্মেলন করে জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর কাজ কৰ্মের বিরুদ্ধাচারণ করে বলেছেন, কংগ্ৰেস ক্ষমতায় এলে জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর কাজই বন্ধ করে দেওয়া হবে। দীৰ্ঘ ৩ বছর ৫৫ হাজার সরকারি কৰ্মচারী প্ৰায় দেড় হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে গত ৩১ ডিসেম্বরে প্ৰথম তালিকা প্ৰকাশ করে।  ৩ কোটি ২৯ লক্ষ মানুষের মধ্যে প্ৰথম খসড়া তালিকায় ১ কোটি ৯০ লক্ষ মানুষের নাম অন্তভূক্ত হওয়ার পরে এন আর সি কৰ্তৃপক্ষ সুপ্ৰীমকোৰ্টকে জানায় প্ৰথম খসড়া তালিকায় অনেক ভুল হয়ে গেছে। প্ৰায় ১ লক্ষ ৫০ হাজার মানুষের নাম বাদ পড়বে। সেই ১ লক্ষ ৫০  হাজার মানুষের নামসহ ৪০ লক্ষ ৭ হাজার ৭০৭ জনকে বাদ দিযে গত ৩০ জুলাই এন আর সি কৰ্তৃপক্ষ দ্বিতীয় চূড়ান্ত তালিকা প্ৰকাশ করে। আজ ২৮ আগষ্ট এন আর সির সমন্বয়ক প্ৰতীক হাজেলা সুপ্ৰীমকোৰ্টকে জানালেন, রাজ্যে ব্যাপক হারে লিগাসি ডাটা কেনা-বেচা হয়েছে। একজন অপরজনের লিগাসি ডাটা ব্যবহার করে এন আর সিতে নাম অন্তভূক্ত করেছে। সুপ্ৰীমকোৰ্টের বিশিষ্ট আইনজীবি উপমনু্য হাজরিকা এবং অন্যান্যদের অভিযোগের প্ৰেক্ষিতে বিচারপতি রঞ্জন গগৈ নেতৃত্বাধীন ডিভিশনবেঞ্চ রাজ্যের প্ৰতিটি জেলায় নতুন করে ১০ শতাংশ হারে এন আর সি তালিকা ভেরিফিকেশনের নিৰ্দেশ জারি করেছেন। অন্য জেলার অফিসারদের নিয়োগ করে এই ভেরিফিকেশনের কাজ করতে হবে। আগামী ৪ সেপ্তেম্বরের মধ্যে সমন্বয়ক প্ৰতীক হাজেলা সুপ্ৰীমকোৰ্টকে প্ৰতিবেদন দাখিল করবেন। আগামী ৫ সেপ্তেম্বর পরবৰ্তী শুনানি দিন ধাৰ্য করা হয়েছে। এ পি ডব্লিউ প্ৰধান অভিজিৎ শৰ্মা এবং আসুর উপদেষ্টা সমুজ্জ্বল ভট্টাচাৰ্য ও এআইইউডিএফ মুখপাত্ৰ আমিনুল ইসলাম দিল্লীতে সুপ্ৰীমকোৰ্টের আজকের এই সিদ্ধান্তর কথা জানান। 

No comments

Powered by Blogger.