Header Ads

চীনের ৩টি বাঁধ থেকে জল ছাড়ার ফলে অরুণাচল প্ৰদেশের সিয়াং নদী প্লাবিত, অসমে সতৰ্কবাৰ্তা জারি


গুয়াহাটিঃ চীনের 3টি বিশাল বাঁধ থেকে জল ছাড়ার ফলে চীনের সাংপো নদী প্লাবিত হয়ে  অরুণাচল প্ৰদেশের সিয়াং নদী উপচে পড়েছে। পাশিঘাট  সহ অরুণাচল প্ৰদেশের বিস্তৃৰ্ণ অঞ্চল ডুবতে বসেছে। ভয়ঙ্কর গতিতে সেই প্লাবনের ফলে অসমের ধেমাজি, জোনাই, ডিব্ৰুগড় প্ৰভৃতি উজান অসমের বিস্তৃৰ্ণ অঞ্চল ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনার প্ৰেক্ষিতে উজান অসমে লাল সংঙ্কেত জারি করা হয়েছে বলে সরকারি সূত্ৰে জানা গেছে। দিল্লীস্থিত চীনা দূতাবাস ভারত সরকারকে জল ছাড়ার কথা জানিয়েছে। এই পৰ্যন্ত চীনের ৩টি বাঁধ থেকে প্ৰায় ৯০২০ কিউবিক মিটার জল ছাড়া হয়েছে। অরুণাচল প্ৰদেশের এক জনপ্ৰতিনিধি আজ অভিযোগ করেছেন, চীন সরকার এক বৃহৎ ট্যানেল নিৰ্মাণ করেছে, তার ফলে নদীগুলিতে ব্যাপক ধ্বসের সৃষ্টি হচ্ছে, সিমেণ্টের মতো মাটি নদীতে মিশে সিয়াং নদীর গভীরতা কমে গেছে। ডিব্ৰুগড়ে ব্ৰহ্মপুত্ৰ নদে জল বেড়ে চলেছে। রাজ্য সরকার লাল সংঙ্কেত জারি করার সঙ্গে সতৰ্কতামূলক সব ধরণের ব্যবস্থা গ্ৰহণ করেছে। এদিকে নিপকো বাঁধ থেকে জল ছাড়ার ফলে নুমলিগড়, ধনসিড়ি, গোলাঘাট প্ৰভৃতি অঞ্চলের প্ৰায় ২০টি গ্ৰাম প্লাবিত হয়েছে। কৃষিমন্ত্ৰী অতুল বরা নিপকো কৰ্তৃপক্ষকে সতৰ্ক করে দিয়ে বলেছে, আগাম খবর না দিয়ে যেন জল ছাড়া না হয়। এদিকে রাজ্য বিজেপি সভাপতি রঞ্জিত দাসের এক মন্তব্যকে ঘিরে আসুর সাধারণ সম্পাদক লুরিণজ্যোতি গগৈ তীব্ৰ প্ৰতিক্ৰিয়া ব্যক্ত করেছেন। রঞ্জিত দাস মন্তব্য করেছেন, জাতীয় সংগঠনগুলির সন্মতি সাপেক্ষে অরুণাচল প্ৰদেশে সুবনসিড়ির বাঁধ নিৰ্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। রাজ্যের অধিকাংশ রাজনৈতিক দল সংগঠন সুবনসিড়ি বাঁধের তীব্ৰ প্ৰতিবাদ করে বলেছে, এর বিশাল বাঁধ নিৰ্মিত হলে উজান অসমের অস্তিত্ব বিপন্ন হবে। সব ডুবে যাবে।

No comments

Powered by Blogger.