Header Ads

বাবা অঞ্জন দত্ত আমার ‘মেণ্টর’, যুব সভানেত্ৰী পদে জয়লাভ করবইঃ অঙ্কিতা দত্ত

গুয়াহাটিঃ অঞ্জন দত্ত ব্যতিক্রমধৰ্মী এক রাজনীতিবিদ, যাকে কেউ ভুলতে পারবে না৷ অসমের আৰ্থ সামাজিক বিকাশে তার অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে৷ সেই ব্যতিক্রমধৰ্মী রাজনীতিবিদের কন্যা তাই স্বাভাবিক ভাবেই বাবাকেই ‘মেণ্টর’ হিসাবে গ্ৰহণ করে তারই জীবনাদৰ্শকে পাথেয় করে রাজনীতির অঙ্গনে পা দিয়েছেন, অঙ্কিতা দত্ত৷ নিখিল ভারত মহিলা কংগ্ৰেসের অন্যতম সদস্য অঙ্কিতা দত্ত অসম প্ৰদেশ যুব কংগ্ৰেসের সভানেত্ৰী হিসাবে প্ৰতিদ্বন্দ্বিতা করতে চলেছেন৷ আজ দিশপুর প্ৰেস ক্লাবে তাঁর প্ৰথম সাংবাদিক সন্মেলনে বলেন, ২০ বছর বাদে কোনও মহিলা যুব কংগ্ৰেস সভানেত্ৰীর পদে প্ৰতিদ্বন্দ্বিতা করবেন৷ এত দিন কেউ সাহস দেখাতে পারেনি৷ রাজ্যের অধিকাংশ জেলায় সফর করার পর অধিকাংশ কংগ্ৰেস নেতা কৰ্মী তার প্ৰতি পূৰ্ণ আস্থা জানিয়েছে৷ কংগ্ৰেসের সৰ্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর পরামৰ্শ দিয়েছেন যারা নতুন দলে এসেছে, তাদের দলে সুযোগ করে দেওয়া উচিত৷ যুব নেত্ৰী অঙ্কিতা দত্ত বলেন,  আগামী ২৩, ২৪ এবং ২৫ জুন যুব কংগ্ৰেসের নিৰ্বাচনে সভানেত্ৰী হিসাবে প্ৰতিদ্বন্দ্বিতা করবেন, তার বিশ্বাস তিনি জয়লাভ করবেন৷ রাজনীতিতে এসে শুধু বিধায়ক হওয়ার স্ব সাকার করায় নয়, জনগণের স্বাৰ্থে বাবার জীবনাদৰ্শকে পূরণ করায় তার একমাত্ৰ উদ্দেশ্য৷ বাবাই তার পথ প্ৰদৰ্শক, বাবার অপূৰ্ণ কাজ কে তিনি সম্পূৰ্ণ করবেন৷ কেন্দ্ৰীয় সরকারের সমালোচনা করে বলেন, মোদি সরকার বছরে ২ কোটি বেকার যুবককে চাকরি দেওয়ার প্ৰতিশ্ৰুতি দিয়েছিলেন কিন্তু তা পূরণ করতে পারে নি, বিজেপি সরকার কোনও কাজে সফল হয় নি৷ কাবিং আংলংয়ে ২ যুবক নিলোৎপল দাস এবং অভিজিৎ নাথের হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে বলেন, অন্ধ বিশ্বাস এবং কু-সংস্কারের বলি হলেন ২ প্ৰতিশ্ৰুতিসম্পন্ন যুবক৷ ডাইনি হত্যার নামেও রাজ্যে কু-সংস্কার, অন্ধ বিশ্বাস মুখ্য ভূমিকা গ্ৰহণ করেছে৷ তা প্ৰতিহত করতে হবে৷ জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে৷ সাংবাদিক সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্ৰদেশ কংগ্ৰেসের সাধারণ সম্পাদক দিগন্ত চৌধুরী৷ 

No comments

Powered by Blogger.