Header Ads

বরাকে মৃতের সংখ্যা ১৭জনঃ ২৩ জুন মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সোনোয়াল বরাকের বন্যা পরিস্থিতি দেখতে যাচ্ছেন

জলমগ্ন শরিফা শ্মশানে মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাচ্ছেন বিধায়ক কমলাক্ষ দে’ পুরকায়স্থ।

গুয়াহাটিঃ অসমের ১০টি জেলায় প্ৰায় ৯ লক্ষ মানুষ চলিত বন্যায় ক্ষতিগ্ৰস্থ হয়েছে৷ প্ৰায় ১৫০০ গ্ৰাম প্লাবিত হয়েছে৷ চলিত বন্যায় সব থেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে বরাক উপত্যকার ৩ জেলায় কাছাড়, করিমগঞ্জ এবং হাইলাকান্দি৷ ৩জেলায় প্ৰায় ৫ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্ৰস্থ হয়েছে৷ বরাক উপত্যকা থেকে বন ও আবকারী মন্ত্ৰী পরিমল শুক্লবৈদ্য আজ জানান কুশিয়ারা, বরাক প্ৰভৃতি নদীর জল কমতে শু করেছে৷ এ পৰ্যন্ত কাছাড় জেলায় ১০ জন, হাইলাকান্দি জেলায় ২ জন এবং করিমগঞ্জ জেলায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ প্ৰতিজন মৃতের পরিবারকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ৪ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হচ্ছে৷ পোষ্টমৰ্টেম হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট পরিবারের হাতে আৰ্থিক সাহায্য তুলে দেওয়া হচ্ছে৷ এখন পৰ্যন্ত ৩ টি মৃত দেহ না পাওয়ার জন্য অৰ্থ দেওয়া যায়নি৷ কংগ্ৰেসের নেতা রকিবুল হুসেইন, কল্যাণ গগৈ আজ করিমগঞ্জ জেলার শরিফা নগর এলাকায় বন্যা দুৰ্গত মানুষদের খবরা-খবর নেন৷ রকিবুল হুসেইন এবং স্থানীয় বিধায়ক কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ অভিযোগ করেছেন দুৰ্গতদের মধ্যে পৰ্যাপ্ত ত্ৰাণ সাহায্য দেওয়া হচ্ছে না৷ কমলাক্ষ দে অভিযোগ করেছেন, ত্ৰাণ সাহায্য নিয়ে বিজেপি  ঘৃণ্য রাজনীতি করছে৷ মানুষের দুঃখ-দুৰ্দশা নিয়ে রাজনীতি কংগ্ৰেস সহ্য করবেনা এর উপযুক্ত জবাব দেবে৷ এই অভিযোগ সম্পৰ্কে মন্ত্ৰী পরিমল শুক্লবৈদ্য বলেন, কংগ্ৰেস নাটক করছে, কংগ্ৰেস রাজত্বে বন্যা পীড়িতদের যথেষ্ট ত্ৰাণ সামগ্ৰী বিতরণ করে নি৷ কংগ্ৰেসের অভিযোগ শোভা পায় না৷ মন্ত্ৰী শুক্লবৈদ্য জানান, আগামী ২৩-শে জুন মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সোনোয়াল ৩ জেলার বন্যার পরিস্থিতি দেখবার জন্য বরাক উপত্যকায় যাবেন৷ আজ দিসপুর সচিবালয় সূত্ৰে জানা গেল, মুখ্যমন্ত্ৰী বরাক উপত্যকার আইন শৃঙ্খলাজনিত পরিস্থিতি এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জী উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে ৩ জেলার উচ্চ পদস্থ অফিসারদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন৷ এক রাত্ৰি বরাকে থাকবে৷ বরাক উপত্যকায় এন আর সি তালিকা প্ৰকাশকে কেন্দ্ৰ করে মানুষের মধ্যে ভয় ও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে৷ সে ব্যাপারে মন্ত্ৰী শুক্লবৈদ্য বলেন, শুধু বরাক উপত্যকা নয় ব্ৰহ্মপুত্ৰ উপত্যকাতেও আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে৷   

No comments

Powered by Blogger.