Header Ads

এন আর সি খসড়া তালিকা প্ৰকাশে সমাজবিরোধী অপশক্তি প্ৰতিরোধ করার আহ্বান সৰ্বানন্দ সনোয়ালের

গুয়াহাটি ১৯ জুনঃ জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর প্ৰথম খসড়া তালিকা প্ৰকাশের সময় রাজ্যে কোনও ধ্বণের অপ্ৰীতিকর ঘটনা ঘটেনি, শান্তিপূৰ্ণ পরিবেশ বিরাজ করেছিল৷ জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর দ্বিতীয় খসড়া তালিকা প্ৰকাশের সময়ও যাতে শান্তিপূৰ্ণ পরিবেশ অটুট থাকে, শান্তি শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যাতে কোনও ধ্বণের অবনতি না ঘটে তার জন্য সরকারী প্ৰশাসনকে সচেতন ও সজাগ থাকার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সোনোয়াল৷ তিনি আজ নলবাড়ী জেলা প্ৰশাসনের এক বৈঠকে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পৰ্যালোচনা করে বলেন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর দ্বিতীয় তালিকা প্ৰকাশকে কেন্দ্ৰ করে সমাজ বিরোধী অপশক্তি গণ্ডগোল পাকাবার ষড়যন্ত্ৰ করছে৷ তা যে কোনও ভাবে প্ৰতিহত করার জন্য জেলা প্ৰশাসনকে নিৰ্দেশ দেন৷ মুখ্যমন্ত্ৰী আজ নলবাড়ী জেলার সামতায় এক মহিলা সমারোহে অংশ গ্ৰহণের পর জেলা প্ৰশাসনের সঙ্গে বৈঠক করেন৷ সামতাতে কনকলতা মহিলা সবলীকরণ কৰ্মসূচীতে ২৫টি আত্মসহায়ক গোষ্ঠীকে ২৫ হাজার টাকা করে এককালীন অৰ্থ সাহায্য করেন৷ মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ বলেন, সমাজের আৰ্থিক বিকাশে যুব সমাজকে পথ নিৰ্দেশ করতে মহিলাদের গুত্বপূৰ্ণ ভূমিকা আছে, তারাই সমাজকে সঠিক পথ দেখাতে পারে৷ অৰ্থমন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মা, প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তণ গগৈকে কটাক্ষ করে বলেন, প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী গগৈ রাজ্যের মহিলাদের হেমামালিনীর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন৷ আমরা হেমামালিনীকে চাই না, আমাদের দরকার কনকলতাকে৷ কংগ্ৰেস সরকার মহিলাদের সাৰ্বিকভাবে ঠগিয়েছে৷ আত্মসহায়ক গোষ্ঠীকে মাত্ৰ ৫ হাজার টাকা করে অৰ্থ সাহায্য করেছিল, আমরা ১ লক্ষ টাকা করে দেব৷ রাজ্যে বিকাশের গঙ্গা বইয়ে দেব৷ আগামী ২ বছরে রাজ্যে একটিও কাঠের সেতু থাকবে না, বাইনোকুলার দিয়ে কাঠের সেতু খুঁজতে হবে, ২০০০ কোটি টাকা ব্যয় করে ১২০০ কংক্রিটের সেতু নিৰ্মাণ করা হচ্ছে, ১৪লক্ষ শিক্ষাৰ্থীকে বিনামূল্যে ভৰ্ত্তির ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে, গত ২ মাসে ৩০০০ ব্যক্তিকে অটল অমৃত যোজনার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে, উচ্চ মাধ্যমিক শ্ৰেণী পৰ্যন্ত বিনামূল্যে পাঠ্য পুস্তক দেওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে৷ আজকের এই সভায় শিপ্ল বাণিজ্য মন্ত্ৰী চন্দ্ৰমোহন পাটোয়ারী, পঞ্চায়েতমন্ত্ৰী নব কুমার দলে, হাউসফেড চেয়ারম্যান রঞ্জিত দাস, জি এম সির ডেপুটি মেয়র বিজুলী কলিতা মেধি বক্তব্য রাখেন৷ নলবাড়ী জেলার ডেপুটি কমিশনার সঞ্জিব কুমার দাস স্বাগত ভাষণ দেন৷ বিধায়ক অশোক শৰ্মা, বিধায়ক নারায়ন ডেকা, এ এস আর এল এম-এর এম ডি নন্দিতা হাজরিকা এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন৷ 

No comments

Powered by Blogger.